ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বুধবার ● ২১ এপ্রিল ২০২১ ● ৮ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার   বুধবার ● ২১ এপ্রিল ২০২১
শিরোনাম: আগস্ট- সেপ্টেম্বরের আগে টিকা রপ্তানি করতে পারবে না ভারত: আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের       হেফাজতের আশার গুড়ে বালি: অসুস্থতার ভান       খালেদা জিয়ার শরীরে ব্যথা নেই, ২-৩ দিন পর ফের পরীক্ষা       বুধবার থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালু        রাশিয়া বাংলাদেশে করোনা টিকা উৎপাদনের প্রস্তাব দিয়েছে: মোমেন       ইন্দোনেশিয়ায় আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ভূমিকম্প       লকডাউনে যুবকের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করা সেই এসআই ক্লোজড      
মনোহরদীতে পরিবেশবান্ধব ইট উৎপাদন শুরু
হারুন-অর-রশিদ, মনোহরদী
Published : Thursday, 8 April, 2021 at 6:09 PM

নরসিংদীর মনোহরদীতে পরিবেশবান্ধব ব্লক বা ইটের উৎপাদন শুরু হয়েছে। আধুনিক যন্ত্রে তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব সব নির্মাণসামগ্রী, যাতে হাতের ছোঁয়াও লাগছে না। নেই কালো ধোঁয়া ও ধুলা। ২০২০ সালে আলিফ ইকো ব্লক ইন্ড্রাষ্ট্রিজ লিমিটেড নামে কারখানায় পরিবেশবান্ধব ইট, হলো ব্লক তৈরি করছে। উপজেলার বড়চাপা ইউনিয়নের পাইকান এলাকায় প্রায় তিন একর অকৃষি জায়গাজুড়ে রয়েছে এই কারখানাটি। 

সেখানে ঘুরে দেখা গেল, বিদেশ থেকে আনা যন্ত্রে উৎপাদন হচ্ছে নির্মাণসামগ্রী। কারখানা হলেও সেখানের পরিবেশ নিরিবিলি। স্বয়ংক্রিয়ভাবে নির্দিষ্ট পরিমাণ বালি, সিমেন্ট ও পাথর এসে মিশে যাচ্ছে। এরপরই তৈরি হচ্ছে ইট বা ব্লক। পোড়ামাটির ইটের বিকল্প যে ব্লক বা ইট উৎপাদন হচ্ছে, তা পোড়ানোরও প্রয়োজন পড়ছে না। নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিভিন্ন আকারের ও ধরনের ইট তৈরি হচ্ছে। একইভাবে তৈরি হচ্ছে ইউনিপেভার্স। 

কারখানার ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী স্বপ্নীল হাসান সিফাত বলেন ‘কারখানায় প্রায় ২০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছেন। তারা দৈনিক ১২ থেকে ১৫ হাজার ইট তৈরি করছেন। পোড়ামাটির ইটের স্থায়িত্ব দিন দিন কমে আসে। আর হলো ব্লকের স্থায়িত্ব দিন দিন বাড়ে। কারণ, ব্লক তৈরি হয় সিমেন্ট, মাটি ও নুড়ি পাথর দিয়ে। আর পোড়ামাটির ইট তৈরি হয় শুধু মাটি দিয়ে। এ ইট ও ব্লক উৎপাদনে পরিবেশের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না। আবার বাড়ি নির্মাণে খরচও কম। সক্ষমতাও বেশি। তাছাড়া আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে নির্মাণে খাতে শতভাগ পরিবেশবান্ধব ইট ব্যবহারের পরিকল্পনা করেছে সরকার।’

কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আলম বলেন, ‘উন্নত দেশগুলো অনেক আগেই এসব সামগ্রী ব্যবহার শুরু করেছে। আমাদেরও সময় এসেছে সেদিকে যাওয়ার। একটা ব্লক পাঁচটি ইটের সমান। পাশাপাশি এর স্থায়িত্ব বেশি। সবকিছু চিন্তা করলে পুরো ভবন নির্মাণে প্রচলিত ইটের চেয়ে খরচ অনেক কম হয়। পরিবেশ বাঁচাতে এর বিকল্প নেই। আর বাংলাদেশের মতো প্রাকৃতিক পরিবেশের জন্য ব্লক খুবই মানানসই।’

তিনি আরো বলেন, ‘৭০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠান ব্লকের ইট উৎপাদন করছে। তাই বর্তমানে যারা মাটি পুড়িয়ে ইট করছে, তাদের পরিবেশবান্ধব ইট উৎপাদনে যেতে হবে।’

আজকালের খবর/এএইস


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com