ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বুধবার ● ২১ এপ্রিল ২০২১ ● ৮ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার   বুধবার ● ২১ এপ্রিল ২০২১
শিরোনাম: আগস্ট- সেপ্টেম্বরের আগে টিকা রপ্তানি করতে পারবে না ভারত: আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের       হেফাজতের আশার গুড়ে বালি: অসুস্থতার ভান       খালেদা জিয়ার শরীরে ব্যথা নেই, ২-৩ দিন পর ফের পরীক্ষা       বুধবার থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালু        রাশিয়া বাংলাদেশে করোনা টিকা উৎপাদনের প্রস্তাব দিয়েছে: মোমেন       ইন্দোনেশিয়ায় আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ভূমিকম্প       লকডাউনে যুবকের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করা সেই এসআই ক্লোজড      
ত্রিশালে হিট ইনজুরিতে কপাল পুড়েছে কৃষকের
আতিকুল ইসলাম বাবলু, ত্রিশাল
Published : Wednesday, 7 April, 2021 at 8:54 PM

চারা রোপণের পর থেকে ধানক্ষেতের আইলে আইলে কেটেছে কৃষক বাছির উদ্দিনের প্রতিদিনের অধিকাংশ সময়। বোরোর ভালো ফলনে তার চোখে-মুখে ছিল স্বপ্ন আর প্রশান্তির ছাপ। রাতে পোহাতেই যেন সব তছনছ হয়ে যায়। ভোরে ক্ষেতের কাছে গিয়ে দেখেন সব ধান চিটা হয়ে গেছে। বাছিরের মতো ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার প্রায় দুই সহস্রাধিক কৃষকের ১৫৮০ হেক্টর জমির বোরো ধান হিট ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে নষ্ট হয়ে গেছে। 

উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, এ বছর ত্রিশালে ৬৯ হাজার কৃষকের ২০ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। আবাদি ফসলে আকস্মিকভাবে ‘হিট ইনজুরি’ (অধিক তাপমাত্রা)তে আক্রান্ত হয়ে প্রায় দুই সহস্রাধিক কৃষকের ১৫৮০ হেক্টর জমির বোরো ধান নষ্ট হয়ে গেছে। ফ্লাওয়ারিং মুহূর্তে ৩০ ডিগ্রির ওপরের তাপমাত্রা সহ্য করতে না পারে না বলেই ধানগুলো সব চিটা হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শোয়েব আহমেদ। 

সরেজমিন উপজেলার কয়েকটি গ্রাম ঘুরে দেখা যায়, ফসলের মাঠে বাম্পার ফলন। কিন্তু ধানের শীষ সাদা রং ধারণ করে অনেক কৃষকের ক্ষেতের ধানগুলো চিটা হয়ে গেছে। স্বপ্নের ফলন যেন কৃষকের সর্বনাশে পরিণত হয়েছে। রামপুর ইউনিয়নের দরিল্লা মধ্যপাড়া গ্রামের কৃষক বাছির উদ্দিন, আবুল হোসেন, খোকন মিয়া, আবুল মুনসুর, মিরু, হারুন অর রশীদ, রফিকুল ইসলাম, তাজুল, গোলাপ মিয়া, শিবলু ফকির, কুতুব উদ্দিন, আকবর আলী, ইব্রাহিম খলিল, জসিম উদ্দিন, হাসিম উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, রুহুল আমিন, আবদুল মোতালেব, রবিদাস ও কৃষানী আয়েশা খাতুনসহ অন্যান্য কৃষকের কয়েক শতাধিক জমির বোরো ধান হিট ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে নষ্ট হয়ে গেছে। এ ছাড়াও সাখুয়া গ্রামের আবদুল মোতালেব, কাকচর গ্রামের রফিকুল ইসলাম, শরীফ আহমেদ ও কোনাবাড়ী গ্রামের মাজহারুল ইসলাম মনিরসহ উপজেলার দুই সহস্রাধিক কৃষকের ফসল নষ্ট হওয়ায় দিশেহারা তারা।  

রামপুর ইউনিয়নের দরিল্লা মধ্যপাড়া গ্রামের বাছির উদ্দিন নিজের জমিসহ বর্গা নিয়ে এক একর জমিতে হীরা-১২ প্রজাতির ধানের চারা রোপণ করেছিলেন। ধানের চারা, পানি, সার ও শ্রমিকসহ খরচ হয়েছিল ৩৫ হাজার টাকা। ভালো ফলনের আশায় ক্ষেতের আইলে আইলে কেটেছে তার অধিকাংশ সময়। চোখে মুখে ছিল স্বপ্ন আর প্রশান্তির ছাপ। সোমবার ভোরে ক্ষেতের কাছে গিয়ে দেখেন সব ধান চিটা হয়ে গেছে। একমাত্র সম্বল হারানোর যন্ত্রণায় পাগলের মতো ছুটে আসেন কৃষি অফিসে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণেই এমন হয়েছে বলে কৃষি বিভাগ জানালে হতাশা নিয়ে ফেরেন বাড়িতে। 

ওই গ্রামের কৃষিনির্ভর আদর্শ কৃষক আবুল হোসেন বলেন, আমার ৭৩ বছর বয়সে এমন নজিরবিহীন ঘটনা আর কোনোদিন দেখিনি। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শোয়েব আহমেদ জানান, ফ্লাওয়ারিং মুহূর্তে ৩০ ডিগ্রির ওপরের তাপমাত্রা সহ্য করতে না পেরে ধানগুলো সব চিটা হয়ে গেছে। এটা প্রাকৃতিক দুর্যোগ।

আজকালের খবর/এএইস


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com