ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ২২ অক্টোবর ২০২০ ● ৭ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার  বৃহস্পতিবার ● ২২ অক্টোবর ২০২০
শিরোনাম: চালকদের ‘ডোপ’ টেস্ট করাতে বললেন প্রধানমন্ত্রী       লিটারে ২ টাকা কমছে সয়াবিন       নৌ-ধর্মঘট : আজকের মধ্যে সমাধানের আশ্বাস প্রতিমন্ত্রীর       মায়ের লাশ নিজ হাতে ৫ টুকরো করে থানায় ছেলের মামলা       কায়সারের মৃত্যু পরোয়ানা আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে       ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের অবস্থা অপরিবর্তিত       কবরস্থান থেকে ফিরে এসে আশা জাগিয়েও ফিরল না শিশুটি      
টানা বৃষ্টিতে ১০০ বছরের রেকর্ড ভাঙল রংপুর
লাবনী ইয়াসমিন, রংপুর
Published : Sunday, 27 September, 2020 at 8:47 PM

টানা ১৪ ঘন্টার অবিরাম বর্ষণ রংপুরে একশ বছরের বৃষ্টিপাতের রেকর্ড অতিক্রম করেছে। রংপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, সেপ্টেম্বর মাসে গড়ে প্রতি বছর ২২৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। তবে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রংপুরে বৃষ্টিপাত হয়েছে ৪৩৩ মিলিমিটার। ফলে এ বৃষ্টিপাত অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

রংপুর জেলা আবহাওয়া কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা নথিপত্র ঘেটে দেখেছি বিগত একশ বছরে এ ধরনের একটানা বৃষ্টিপাত হয়নি। রংপুরে আরো সোম ও মঙ্গলবার দু’দিন হালকা ও মাঝারী ধরনের বৃষ্টিপাত হতে পারে।

এরই মধ্যে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে নগরীর কয়েক লাখ পরিবার। নগরীর মুলাটোল, গোমস্তপাড়া, পাকপাকা, কেরানিপাড়া, ইঞ্জিনিয়ারপাড়া, ধাপ, পাশারিপাড়া, জুম্মাপাড়া, লালবাগ, কলেজপাড়া সহ বেশিরভাগ এলাকাতেই পানিবন্দি হয়ে পড়েছে সাধারন মানুষ। সকালের দিকে পানির পরিমান কম থাকলেও ধীরে ধীরে পানির পরিমান বেড়ে যাচ্ছে বলছেন জনগন। নগরীর ৯ নং ওয়ার্ডের ফরহাদ হোসেন বলেন, "ছোট থেকে বড় হলাম আমাদের বাসায় কখনও পানি ওঠেনি। এবারই প্রথম পানি উঠল। পানি বেরানোর রাস্তা না থাকায় উজানের পানি ঘুরপাক খেয়ে আটকে যাচ্ছে।"

হঠাৎ এক রাতের বৃষ্টিতে কোমর পানি ওঠা প্রথম দেখলেন কারমাইকেল কলেজ ছাত্রী সেতু। তিনি বলেন, "রাত ৪ টার দিকে বাড়িতে পানি ঢোকা শুরু করে।" ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভাল না থাকায় এমনটা হয়েছে দাবি করেন এই ছাত্রী। 

অন্যদিকে রংপুরের সব ছোট নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমা অতিক্রম করেছে। এর মধ্যে যমুনেশ্বরী নদী তারাগঞ্জে বিপদসীমার ১৫৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে রবিবার প্রবাহিত হয়েছে।

শুধু তাই নয় পাড়া-মহল্লার বাসাবাড়িতে ঘরের ভেতর পানি ঢুকে পড়েছে। নগরী পয়নিষ্কাশন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার বেহাল দশার কারণে এই বৃষ্টিপাতে নগরবাসীকে জনদুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বলে নগরীর বাসিন্দারা মনে করেন।

নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাড়িঘর ডুবে থাকায় অনেকে অপেক্ষাকৃত উঁচু স্থানে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাসায় আশ্রয় নিয়েছেন। নগরীর পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা ও পানি প্রবাহের জন্য প্রায় শত বছর আগে খননকৃত একমাত্র শ্যামাসুন্দরী খাল সংস্কার করার নামে সরকারি অর্থ লুটপাট করায় খালের যথাযথ সংস্কার না হওয়ায় এ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে নগরবাসীর অভিযোগ।

একাধিক বিপণিবিতানের ভেতর পানি ঢুকে পড়ায় অনেক ব্যবসায়ীর বিভিন্ন মালামাল পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে। অনেকের মালামাল রাখার গুদাম ঘরে পানিতে বিপুল পরিমাণ পণ্য নষ্ট হয়ে গেছে। এর পরিমাণ প্রায় অর্ধকোটি টাকা হবে বলে একাধিক ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে। অনেকের বাসা বাড়িতে ঘরের ভেতর পানিতে ভিজে আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল ও খাদ্য শস্য নষ্ট হয়ে গেছে।

রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান হাবীব বলেন, রংপুরের ঘাঘট নদী রোববার হাজীরহাট জাফরগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ৫ সে.মি ও মর্ডাণ মোড় ইসলামপুর পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৬ সে.মি উপর দিয়ে, যমুনেশ্বরী নদীর পানি তারাগঞ্জের বারটি পয়েন্টে বিপদসীমার ১৫৫ সে.মি ও বদরগঞ্জে বিপদসীমার ২৮ সে.মি উপর দিয়ে এবং করতোয়া নদীর পানি বিপদসীমার ৫ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত হয় গোবিন্দগঞ্জ চকরহিমপুরে। এছাড়া তিস্তা নদীর পানি ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ১৫ সে.মি ও কাউনিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২০ সে.মি নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

তিনি বলেন, বড় নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম না করলেও ছোট নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছে। ফলে রংপুর নগরীরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

আজকালের খবর/এএইস


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com