ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  শুক্রবার ● ১২ আগস্ট ২০২২ ● ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯
ই-পেপার  শুক্রবার ● ১২ আগস্ট ২০২২
শিরোনাম: করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রমে সরকারের ব্যয় ৪০ হাজার কোটি টাকা       সালমান রুশদির ওপর হামলা       ইউক্রেনে পৌঁছেছে যুক্তরাজ্যের সেই অস্ত্রের নতুন চালান       এবার চিনির দাম বাড়ানোর প্রস্তাব        তথ্যগত গরমিলে ডিএনসিসির ১০ গাড়িচালকের নিয়োগ বাতিল       ডিমের দামে রেকর্ড, ব্রয়লার মুরগির ডাবল সেঞ্চুরি        সিরিজ হারের লজ্জা নিয়ে দেশে ফিরলো তামিম বাহিনী      
ফুলবাড়ীতে পেঁয়াজ ও রসুনের দাম কমায় লোকসানে ব্যবসায়িরা
প্লাবন শুভ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)
Published : Saturday, 6 August, 2022 at 5:28 PM

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজ ও রসুনের দাম কেজিতে কমেছে ১০ থেকে ১৫ টাকা। এতে ক্রেতারা স্বস্তি প্রকাশ করলেও আর্থিক লোকসানে পড়েছেন পাইকারি ব্যবসায়িরা। আজ শনিবার ফুলবাড়ী পৌর বাজারের পাইকারি ও খুচরা সবজি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি রসুন প্রকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৪৮ থেকে ৫০ টাকা দরে। যা এক সপ্তাহে আগে প্রকারভেদে বিক্রি হয়েছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকা কেজিদরে।

একইভাবে ভারতীয় আমদানিকৃত পেঁয়াজ প্রকার ভেদে পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১৬ থেকে ১৮ টাকা কেজিদরে। যা এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছে প্রকারভেদে ২২ থেকে ২৫ টাকা কেজিদরে। তবে দেশি পেঁয়াজ আগে ৩২ থেকে ৩৫ টাকা কেজিদরে বিক্রি হলেও বর্তমানে সেটি বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা কেজিদরে। এক্ষেত্রে খুচরা বাজারে আমদানিকৃত এবং দেশি পেঁয়াজ প্রকার ভেদে পাইকারি দাম থেকে প্রতি কেজিতে ২/৩ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। 

পৌর এলাকার সবজি বাজারে বাজার করতে আসা এনজিও কর্মী আব্দুর রহমান বলেন, বর্তমানে পেঁয়াজ ও রসুনের দাম কমে আসায় নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর জন্য স্বস্তির বিষয় হয়। আবার একই সময়ে কাঁচা ও শুকনা মরিচের দাম বেড়ে যাওয়ায় একই পরিবারগুলোর জন্য অস্বস্তির খবর হয়। দাম বেড়ে যাওয়ার কারণে অনেক পরিবার চাহিদানুযায়ী মরিচ যেমন কিনতে পারছেন না, তেমনি দাম কমে আসায় একই পরিবারগুলো পেঁয়াজ ও রসুন চাহিদানুযায়ী কিনছেন। 

খুচরা পেঁয়াজ ও রসুন বিক্রেতা গোলাম মোস্তফা বলেন, দাম কমে আসায় পেঁয়াজ ও রসুনের বেচাবিক্রি বেড়েছে। কয়দিন আগেও রসুন ও পেঁয়াজ মানুষ হিসেব করে এক কেজির জায়গায় ২৫০ গ্রাম কিনলেও দাম কমে যাওয়ায় এখন প্রয়োজন মাফিক কিনছেন। 

পাইকারি রসুন ও পেঁয়াজ বিক্রেতা অজয় দত্ত ও রাজু আহম্মেদ বলেন, ভারতীয় রসুন ও পেঁয়াজের আমদানি চাহিদানুযায়ী হওয়ায় স্থানীয় বাজারগুলোতে রসুন ও পেঁয়াজের দাম কমে এসেছে। এক সপ্তাহ আগের ক্রয় করা রসুন ও পেঁয়াজ বর্তমানে কমে যাওয়া দামে বিক্রি করতে গিয়ে ব্যবসায়িরা আর্থিক লোকসানের মুখে পড়েছেন। তবে দেশি রসুন ও পেঁয়াজের দাম একটু বাড়তি রয়েছে। ভারতীয় পেঁয়াজ ও রসুন আমদানি স্বাভাবিক থাকলে বাজার সকল শ্রেণির মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকবে। 

আজকালের খবর/ওআর



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা বিভাগ- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.net, www.ajkalerkhobor.com